দুপুর ১২:২৩ বুধবার ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আপনার সংবাদ

নুহাশের সঙ্গে প্রেমের বিষয়ে মুখ খুললেন সুনেরাহ

বিনোদন  প্রতিবেদক : প্রয়াত কথা সাহিত্যিক – নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদ তনয় নির্মাতা নুহাশ হুমায়ূনের সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জন নিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল। তরুণ প্রজন্মের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী কাজের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও বেশ সক্রিয়। তবে মাঝে মধ্যেই নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে খবরের শিরোনাম হন তিনি। এবার তরুণ নির্মাতা নুহাশ হুমায়ূনের সাথে প্রেমের গুঞ্জন উঠেছে সুনেরাহ’র। ফেসবুকের একটি পোস্ট নিয়ে নানা রকমের মন্তব্য শুনতে হচ্ছে সুনেরাহকে। সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেত্রী। তিনি বলেন, ফেসবুকে কিছু পোস্ট করলেই আমি ভয়ে থাকি।

জানা গেছে, নতুন বছরের ১ জানুয়ারি নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে নির্মাতা নুহাশ হুমায়ূনের সঙ্গে তিনটি ছবি পোস্ট করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান সুনেরাহ। আর তাতেই ঘটেছে যত বিপত্তি। নেটদুনিয়ায় এখন সেই ছবিগুলো ঘুরপাক খাচ্ছে। অনেকেই নাটক – চলচ্চিত্রের বিভিন্ন গ্রুপে ছবিগুলো শেয়ার করেছেন। আর সেখানেই সুনেরাহ ও নুহাশকে নিয়ে নানা সমালোচনা হয়। এদিকে নুহাশ – সুনেরাহ প্রেম করছেন কী না – এমন প্রশ্নে রীতিমতো ঝড় ওঠেছে গ্রুপগুলোর মন্তব্যের ঘরে।

তবে বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন সুনেরাহ। তিনি এই বিষয়ে বলেন, এসব শুনতে শুনতে এখন অভ্যাস হয়ে গেছে। নুহাশ আমার মিডিয়ার সহকর্মী বলেই কি আপনারা জিজ্ঞাসা করছেন। কিন্তু মিডিয়ার বাইরের বন্ধুদের সাথে ছবি দিলেও একইভাবে মন্তব্য করে। তবে এসব কথায় এখন আর কান দেই না। কে কী বলল, সেটা দেখে লাভ নেই। মানুষতো কত কিছুই বলবে ? তিনি আরও বলেন, ফেসবুক মানেই মানুষ যা ইচ্ছা বলতে, লিখতে পারবে। আর এ কারণেই এখন ছবি পোস্ট করতে বিরক্ত লাগে। বন্ধুদের সঙ্গে ছবি দিলেও ধরে নেয় বয়ফ্রেন্ড। পরে যা ইচ্ছা, তা–ই বলতে থাকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্বাধীনতা বলে কিছু নেই ?

সুনেরাহ একটি ঘটনার উল্লেখ করে বলেন, কিছুদিন আগের কথা – এক ব্যক্তি ফেসবুক থেকে সুনেরাহ’র ছবি ডাউনলোড করে নিজের বলে দাবি করেন। পরে সেই ব্যক্তি সুনেরাহকেই অভিযুক্ত করে ফেসবুকে ক্লেইম করেন। সুনেরাহ বলেন, আমার ছবি সেটা অন্য একজন আমার পোস্ট থেকে কপি করে আমাকে দোষী বানিয়েছে। ফেসবুকের কাছে অভিযোগ করেছে, আমি তার ছবি ব্যবহার করেছি। যা হওয়ার তা–ই! মার্চ পর্যন্ত আমি ফেসবুক পেজ ব্যবহার করতে পারবো না। আমার নিজের ছবি দিয়েই কপিরাইট ক্লেইম দিয়েছে। যে ক্লেইম করেছে, সে আবার আমাকে ব্লক করে রেখেছে। তাকেও ধরতে পারছি না। এখন কী করবো, কিছুই করার নেই।

তিনি আরও বলেন, ফেসবুকে মন্তব্য দেখা বন্ধ করে দিয়েছি অনেক আগেই, বলেন সুনেরাহ। তার মতে, অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারী রয়েছেন, যাদের কাজ মানুষকে বিপদে ফেলা। এছাড়া কেউ কেউ নিয়মিত অভিনয়শিল্পীদের অনুসরণ করে ওত পেতে থাকেন ক্ষতি করার জন্য। সুনেরাহ বলেন, আমি নুহাশের ‘মশারি’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছি। সেটি বেশ কিছু উৎসব থেকে পুরস্কৃত হয়েছে। আর নুহাশের জন্মদিনে উইশ করেছি। তার সাথে ছবিসহ ফেসবুকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালে ক্ষতি কী ? এখানে কার সঙ্গে কী বন্ধুত্ব, চেনাজানা হতে পারে না ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *